Category: SHORT STORY

নেশা লাগিল রে – সুপ্রিয় রায়

নেশা লাগিল রে – সুপ্রিয় রায়

করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে সারা দেশ এখন আতঙ্কিত । গুটকা , পানে যারা আসক্ত তারা পড়েছে খুব মুশকিলে । নিজেদের ইচ্ছা মতো আগে যেখানে সেখানে থুথু ফেলত । এখন লুকিয়ে ফেলতে হচ্ছে কারণ ধরলেই জরিমানা । মদের দোকানও বন্ধ ।বাকী রইলো সিগারেট , বিড়ি । চলছে অবাধে কারণ যারা সিগারেট, বিড়ি খান তারা যেখানে সেখানে থুথু … Continue reading নেশা লাগিল রে – সুপ্রিয় রায়

বিচ্ছেদ নয় মিলন চাই – সুপ্রিয় রায়

বিচ্ছেদ নয় মিলন চাই – সুপ্রিয় রায়

ছোটবেলা থেকেই সার্থকের গল্পের বই পড়ার দিকে খুব ঝোঁক । সুযোগ পেলেই বসে পড়তো গল্পের বই বা ম্যাগাজিন নিয়ে । কতদিন পড়ার বইয়ের মধ্যে গল্পের বই নিয়ে পড়েছে যাতে বাবা – মা টের না পায় । যাতে বাবা, মা ভাবে ও পড়ার বই পড়ছে । আগে তো খাওয়ার সময় আর শোবার সময় ওর হাতে বই … Continue reading বিচ্ছেদ নয় মিলন চাই – সুপ্রিয় রায়

ইস্পাতের রং নীল – সুপ্রিয় রায়

ইস্পাতের রং নীল – সুপ্রিয় রায়

ট্রেনটা কানপুর স্টেশনে দাঁড়াতেই সার্থক ওর সুটকেসটা নিয়ে নেমে পড়লো । অচেনা শহর । প্রথম চাকরী । তাও  আবার বাড়ির থেকে হাজার কিমি দূরে । সম্পূর্ণ অপরিচিত এক গণ্ডির মধ্যে । কিছু করার নেই । চাকরীটা সার্থককে এই মুহূর্তে করতেই হবে । চারিদিক দেখতে দেখতে ধীরে ধীরে ও স্টেশন থেকে বাইরে বেড়িয়ে আসলো । প্রচুর … Continue reading ইস্পাতের রং নীল – সুপ্রিয় রায়

অমানবিক – সুপ্রিয় রায়

অমানবিক – সুপ্রিয় রায়

-- এই কাগজটা শাক সবজির দোকানে দিবি আর এই কাগজটা দিবি মুদিখনার দোকানে।দুটো ব্যাগ দিয়ে দিলাম , একটাতে শাক সবজি আর আরেকটাতে মুদিখনার জিনিস আনবি । দোকানদারের থেকে তিন ফুট দূরে দাঁড়াবি  ।মুখে মাস্কটা পরে যাবি ।কিরে বুঝলি তো । তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসবি । জানিস তো চারিদিকে লকডাউন চলছে । এদিক ওদিক ঘুরলে কিন্তু … Continue reading অমানবিক – সুপ্রিয় রায়

স্বভাব চোর – সুপ্রিয় রায়

স্বভাব চোর – সুপ্রিয় রায়

অলীক বাবুর স্ত্রী , তিন ছেলে , তিন বৌমা , এক নাতি ও এক নাতনি নিয়ে ভরা সংসার । সবসময়ের জন্য বাড়িতে থাকে একজন কাজের মহিলা । এছাড়া ঠিকা কাজ করে দুজন । একজন ঘরদোর পরিষ্কার রাখে আর একজন বাসন মাজে । সচ্ছল পরিবার । অলীক বাবুর বাড়িতে একটা নিয়ম অনেকদিন ধরেই চলে আসছে । … Continue reading স্বভাব চোর – সুপ্রিয় রায়

করোনা আতঙ্ক – সুপ্রিয় রায়

করোনা আতঙ্ক – সুপ্রিয় রায়

আনন্দেই কাটছিল দিনগুলো আমেরিকার সল্টলেকে । করোনা আতঙ্কের প্রভাব ওখানে তেমনভাবে অনুভব করিনি । রাস্তাঘাটে , মলে , দোকানে বেশীরভাগ কাউকে মাস্ক পড়তেও দেখিনি । কদাচিৎ রাস্তায় দেখেছি কাউকে মাস্ক পড়তে । যেটুকু আতঙ্ক হচ্ছিল তা খবর পড়ে । আগে থেকেই আমাদের দেশে ফেরার দিন ঠিক ছিল ৪ই মার্চ ।ছেলে বেশ কিছু মাস্ক আর স্যানিটাইজার … Continue reading করোনা আতঙ্ক – সুপ্রিয় রায়

ইন্টারভিউ – সুপ্রিয় রায়

ইন্টারভিউ – সুপ্রিয় রায়

আজকেই বিকালে ইন্টারভিউয়ের রেজাল্ট  বেড়ানোর কথা ছিল ।সল্টলেকের সেক্টর ফাইভে ঝা চকচকে মাইক্রোসফটের অফিসে তাই সবাই বসে ছিল । সবাই সবে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেছে এবং চাকরীর জন্য ইন্টারভিউ দিতে এসেছে । প্রচুর ছেলে মেয়ে লিখিত পরীক্ষায় বসেছিল । তারমধ্য থেকে এই ২০০ জনকে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডেকেছিল । সবার ইন্টারভিউ  হয়ে গেছে শুধু রেজাল্ট বেড়ানোর অপেক্ষায় … Continue reading ইন্টারভিউ – সুপ্রিয় রায়

আজও মনে পড়ে – সুপ্রিয় রায়

আজও মনে পড়ে – সুপ্রিয় রায়

সেদিনের কথা আজও মনে পড়লে মনটা বিষাদে ভরে ওঠে । অনেকগুলো বছর পার হয়ে গেল কিন্তু মন থেকে কিছুতেই সেদিনের কথা মুছে ফেলতে পারছি না । মুছে ফেলতে পারলে খুব ভাল হতো তাহলে অন্তত দুঃখটা কম হতো । আমি তখন মুম্বাইতে কর্মরত । একা থাকি মুম্বাইতে আর আমার পরিবার থাকে শিলিগুড়িতে ।  শিলিগুড়িতেই থাকে আমার … Continue reading আজও মনে পড়ে – সুপ্রিয় রায়

ফিরে দেখা     – সুপ্রিয় রায়

ফিরে দেখা – সুপ্রিয় রায়

চোখটা প্রায় লেগে গেছিল । হঠাৎ তোমার গুনগুন গান শুনে ঘুমটা ভেঙে গেল । আমরা প্লেনে এত জার্নি করেছি কিন্তু কোনদিন তোমাকে এভাবে প্লেনের মধ্যে গুনগুন করে গান গাইতে শুনিনি । বুঝতে পারছি তোমার মনটা খুব আনন্দে আছে । তা কত বছর বাদে তোমার গ্রামে ফিরছো ? আমারও তো তোমার গ্রাম দেখা হয়নি । - … Continue reading ফিরে দেখা – সুপ্রিয় রায়