নিউ ইয়র্ক (New York)

নিউ ইয়র্ক (New York)

সেদিন ছিল ১৪ই ফ্রেব্রুয়ারী , আমাদের জন্য খুবই স্পেশাল দিন । না , না , ভালোবাসা দিবস বা ভ্যালেন্টাইন’স ডের জন্য নয় । ওদিন ছিল আমাদের বিয়ের দিন । তাই ওদিনই ছোট ছেলে প্রোগ্রাম করলো নিউ ইয়র্ক ঘুরতে যাওয়ার জন্য। রাত্রি ১২ টায় সল্ট লেক সিটি থেকে আকাশপথে রওনা হয়ে ওখানকার সময়(এখান থেকে ২ ঘণ্টা এগিয়ে) ৬ টায় পৌছালাম উত্তর আমেরিকার ব্যস্ততম বিমানবন্দর  জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ।বিমানবন্দরেই ফ্রেস হয়ে এবং বেশী করে প্রাতরাশ সেরে একটা ক্যাব নিয়ে রওনা হলাম মেট্রো স্টেশন । মেট্রো করে যাব ফেরী ধরতে উদ্দেশ্য স্টেটেন দ্বীপ (Staten Island)। ১৮৮৯ সালে ব্রুকলিন (Brooklyn), কুইন্‌স (Queens), ম্যানহাটন (Manhattan), ব্রঙ্ক্‌স (The Bronx), and স্টেটেন  (Staten Island) এই  পাঁচটি দ্বীপ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম ও সবচেয়ে বেশি প্রভাবশালী মহানগরী নিউ ইয়র্কের পত্তন হয় ।প্রথমেই চমক মেট্রো রেলে । দেখি ট্রেনের ভিতর একটা নোটিশ দেওয়া আছে ছটি ভাষায় । তার মধ্যে বাংলা একটি । স্বভাবতই বাংলায় লেখা দেখে ভাল লাগলো । ফেরী ঘাট থেকে স্টিমারে করে রওনা হলাম হাডসন নদীর (Hudson River)উপর দিয়ে । নিউ ইয়র্ক শহরটাকে খুব সুন্দর দেখা যায় এই নদীর উপর থেকে । তারপর চোখের সামনে দেখলাম ১৮৮৬ সালে তৈরি স্ট্যাচু অফ লিবার্টি নামক বিশালাকার তাম্রমূর্তিটি। মন ভরে গেল । এরপর ফেরী করেই আসলাম ম্যানহাটন দ্বীপে । ম্যানহাটনই মূলত নিউইয়র্ক শহরের প্রাণ। পা রাখতেই চোখের সামনে ফুটে ওঠে ম্যানহাটনের গগনচুম্বী সব দালান বা  স্কাইস্ক্রাপারের চিত্র। এম্পায়ার স্টেট, ক্রিস্‌লার, সিটিকর্প সেন্টার,ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার কাকে ছাড়া কাকে দেখবো । সবকটি বাড়িই মনে হচ্ছে আকাশ ছুয়ে আছে । এম্পায়ার স্টেটের সামনে দাঁড়িয়ে মনে হচ্ছিল কিংকং সিনেমার কথা । এম্পায়ার স্টেটের মাথার উপরে কিংকং বসে আছে । আর ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার দেখে মন খারাপ হয়ে যাচ্ছিল ১১/৯ র  ধংসের সব ছবি চোখের সামনে ফুটে উঠচ্ছিল । ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের সামনেই আছে দুটি বিশাল স্মৃতি কুম্ভ যার মধ্যে সকলের নাম লেখা আছে যারা ঐ আঘাতে মারা গেছেন ।তারপর টিকিট কেটে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের  নতুন বাড়ির ১০২ তলা অবধি উঠে গেলাম লিফটে করে মুহূর্তের মধ্যে ।চারিপাশে কাঁচ দিয়ে ঘেরা তাই উপর থেকে পরিষ্কার দেখা যায় সারা শহরটাকে । একে একে শহরের মধ্যেই দেখলাম ওয়াল স্ট্রিট(ব্যবসা-বাণিজ্য) , ব্রডওয়ে (মঞ্চনাটক), ফিফথ অ্যাভিনিউ(কেনাকাটা )  , ম্যাডিসন অ্যাভিনিউ (বিজ্ঞাপন শিল্প)  , গ্রিনিচ ভিলেজ ( বোহেমীয় জীবনযাপনের ধারা)  , সেভেনথ অ্যাভিনিউ ( পোশাকশৈলী) , ট্যামানি হল ( কূটনীতি রাজনীতি)  আর হারলেম ( জ্যাজ সঙ্গীতের আদিযুগ ও আফ্রিকান-মার্কিনীদের জীবনাকাঙ্খার ছবি ) । একটা চিনা মার্কেট দেখলাম যেখানে প্রায় বেশীরভাগ সাইন বোর্ড চিনা ভাষাতেও লেখা । আবার দেখলাম একটা ইতালি মার্কেট । কুইন্‌স দ্বীপে দেখলাম একটা জায়গা নাম জ্যাক্সন হাইট (Jackson Heights) প্রচুর বাঙালির  দোকান এবং বাংলায় সাইনবোর্ড ।নেপালি দোকানও আছে ওখানে । পান – সিগারেটের দোকানেরও অভাব নেই । নিউ ইয়র্কে হাডসন নদীর উপর আছে বেশকটি দারুণ সুন্দর ব্রিজ যারা দুই দ্বীপকে জোড়া লাগিয়ে রেখেছে । সব কটি ব্রিজই দেখলাম কিন্তু সবচেয়ে ভাল লাগলো ব্রুকলিন ব্রিজ যেটা ১৮৮৩ সালে তৈরি । শহরের গণপরিবহন ব্যবস্থা বেশ ভালই দেখলাম । এখানে নিউ ইয়র্ক সিটি সাবওয়ে নামে বিশ্বের বৃহত্তম দ্রুতগামী এই পাতাল রেল ব্যবস্থাটি ৪৭২টি স্টেশন নিয়ে গঠিত। গ্র্যান্ড সেন্ট্রাল রেল স্টেশন দেখে মনে হয় সেভেন স্টার হোটেল এবং তার সাথে চারিদিক ঝলমল করছে একটা বিশাল মল  ।রাতের আলোয় টাইমস স্কোয়ার চত্ত্বর দেখে মনে হয় মেলা বসেছে । রাস্তায় দোকান , বিভিন্ন সাজে সজ্জিত মানুষজন নানা রকম অঙ্গভঙ্গি করে সবাইকে আনন্দ দিচ্ছে । আমেরিকার প্রায় প্রত্যেক বড় বড় শহরেই দেখতে পারছি এইরকম জমজমাট আলোকজ্জ্বল মার্কেট । নিউ ইয়র্ক টুর শেষ করলাম নিউজার্সির আটলান্টিক সিটি (Atlantic City) দেখে । আটলান্টিক সাগরের ধারে এক সুন্দর সাজানো গোছানো লাস ভেগাসের মতো ২৪ ঘণ্টা জমজমাট ক্যাসিনোর শহর এই নিউজার্সির আটলান্টিক সিটি ।সমুদ্রের পারে রয়েছে প্রচুর বিনোদনের ব্যবস্থা । আছে হাই রোলার , আছে অনেক ঝা চকচকে হোটেল আর শহরে আছে গগনচুম্বী অত্যাধুনিক বাড়ি ।মনের ক্যামেরায় প্রতিটা মুহূর্তকে ধরে নিয়ে আমরা ফিলাডেলফিয়া (Philadelphia), বালটিমোড় ( Baltimore  )  হয়ে রওনা দিলাম ওয়াশিংটন, ডি.সি ( Washington,  D. C)।  

Please visit my You tube channel : https://www.youtube.com/cha…/UCwI8JNW7FmslSEXnG6_GAgw/videos

2 thoughts on “নিউ ইয়র্ক (New York)

  1. Biman Kumar Chatterjee নিখুঁত বর্ণনা! তথ্যনির্ভর ভৌগোলিক লেখা। সুপ্রিয় কে তো আমেরিকা বাসী বলেই মনে হচ্ছে। সুযোগ পেয়েছ, উপভোগ করো।
    Apurba Neogi
    Wonderfully described with photographs the Tour of New York and its surroundings which you enjoyed on Marriage Anniversary Day. Congrats. for such a beautiful description in details and my heartiest best wishes for your Marriage Anniversary. Enjoy.
    Mousumi Dutta
    Khub sundor
    Swapnesh Ghosh
    bornonata darun laglo.
    Jaba Sengupta Roy
    Nice write up. Thanks for sharing. Enjoy your trip.
    Aditi Ghosh
    Tomader chobi dekhle ghora hoe jae, khub sundor vabe ek ek ta totho die chobi dao, khub valo lage
    Maguni Charan Mahanta
    Nice pics of New York
    Naru Mahato
    Excellent/wonderful
    Sampa Gupta
    Khub sundar lekha o chabi
    Sanjukta Mohanty
    nice description
    Tapasi Banerjee
    Apurbo. Khub khub valo lagche. Anek kichu jante parchi.
    Chanchal Bhattacharya
    খুব সুন্দর বর্ণনা।
    ভালো লাগলো।।
    Manjula Ghosh
    Sotti tomra god gifted sob somoy avabe valo theko
    Jayanti Acharjee
    Apurbo dada khub bhalo laglo
    Pradip Kumar Das
    Best wishes for marriage anniversary
    Kumkum Dutta
    Toder Anniversary ta darunnn katlo tahole…👍👍👍
    Darunn darunn sabb barnona…অপূর্ব
    Bijaya Chatterjee
    Excellent
    Krishnasis Chatterjee
    Beautiful description of New York City and surrounding. Got a glimpse of tourist attractions. More we need through your able
    Writing.
    Papia Kargupta
    বাহ্ চমৎকার বর্ণনা মনে হচ্ছে সব চোখের সামনে দেখতে পেলাম 👌👌
    Swapan Dattaray
    Nice .enjoy .
    Biplabshankar Mazumder
    চাক্ষুষ করলাম নিউইয়র্ক তোমার প্রাণ্জল বর্ণনার মধ্য দিয়ে। ভালো লাগলো তোমার অভিব্যক্তি প্রতিটি দর্শনের।
    ভরে নাও তোমার ঝোলা , আমরা প্রত্যক্ষ করবো ঝুলি থেকে বেড়োনো বিড়ালটির।
    অপেক্ষায় রইলাম পরবর্তী প্রাপ্তির।
    B Kumar Samanta
    Supryoda very nice prentation
    Mita Sengupta
    Sundor lekha.porte khub bhalo lage.
    Abani Banerjee
    এর থেকে ভাল গিফ্ট হয় না বিবাহদিবসে।
    Minati De
    Khub valo lagche . e
    Shubhranshu Mohan Banerji
    Best Wishes
    Gautam Chaki
    Belated marriage anniversary both of you
    Soma Dasgupta
    আমাদের জন্য লেখা ও ছবি দুটো ই খুব ভালো পাঠিয়েছ । আমাদের খুব ভালো লেগেছে ।
    Mita Sengupta
    Belated happy anniversary.
    Amlan Roy Chowdhuri
    Best wishes belated.
    Kanti S
    Khub sundar lekha o chobe dure theke amra upovog korche
    Mousumi Dasgupta
    Apurbo …lekha o chobi..👌👌💖
    Tanima Goswami
    Apurbo. Khub balo lagche. Anak kichu jante parlam.
    Nikhil Laha
    দুর্দান্ত ফটোগ্রাফি,সাথে অবিশ্বাস্য বর্ণনা।মনে হচ্ছে আমিই ওখানে চলে গিয়ে হারিয়ে গেছি।
    Sukhendu Ray
    তোর বেড়ানোর মাধ্যমে ভালো ভালো ফটো দেখতে পেলাম। ধন্যবাদ সুপ্রিয়।
    Aloka Mitra
    Memory abar revive Halo r anek valo laglo ae Post gulo jeno hariye na jae akta book print karle pic sathe khub valo hae
    Rina Ray
    Tomader Tubai bibaho barsikite darun upohar dieche jibon sarthok
    Bharati Banerjee
    Ki apurbo sahitya gyan dada mugdho hoyegelam porre

    Liked by 1 person

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s