পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়

পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়

সকাল সকাল দলমা থেকে বেড়িয়ে গিরিধারি নামে একটা ধাবাতে ব্রেকফাস্ট সেরে চললাম পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ের উদ্দেশ্যে । দলমা থেকে পুরুলিয়া অযোধ্যা পাহাড়ের by road দুরত্ব ৬৬ কিমি । লাল পলাশ , লাল মাটির রাস্তা , জঙ্গল ও পাহাড় বেষ্টিত পুরুলিয়ার প্রধান আকর্ষণ পূর্বঘাট পর্বতমালার একটি সম্প্রসারিত অংশ অযোধ্যা পাহাড়। উচ্চতা প্রায় ২০০০ফুট। অযোধ্যা পাহাড়ের উচ্চতম শৃঙ্গটি হল গোরগাবুরু। এই অঞ্চলটি ছোটো নাগপুর মালভূমির সবচেয়ে নিচু ধাপ। অযোধ্যা পাহাড়ের চুড়ায় পৌঁছানোর আগেই পড়লো লোয়ার ড্যাম ও আপার ড্যাম । দারুন সুন্দর দৃশ্য , মন জুরিয়ে যায় । মনের মতো করে ছবি তোলার পর পাহাড়ের উপরে পৌছালাম । অনেকটা সমতল এরিয়া । যারা জামশেদপুর থেকে অযোধ্যা বাঘমুণ্ডি হয়ে যাবে তাদের আগে ড্যাম পড়বে আবার যারা পুরুলিয়া স্টেশন থেকে আসবে তাদের পড়ে ড্যাম পড়বে । একটা ফুটবল স্টেডিয়াম দেখলাম যেখানে টুর্নামেন্ট হচ্ছিল । আর এই টুর্নামেন্টকে ঘিরে ওখানকার মানুষের দারুন উৎসাহ লক্ষ্য করলাম । এখানকার লোকে যে ফুটবল প্রেমী তা স্টেডিয়ামের ভিড় দেখলেই বোঝা যায় ।গাড়ি নিয়ে টুরিস্ট লজে পৌঁছে সব ফর্মালিটি সেরে আবার গাড়ি নিয়েই বেড়িয়ে পড়লাম বামনি ফলস দেখতে । অনেকটা নীচে নামতে হয় । পাহাড়ি রাস্তা, খুব সাবধানে পা ফেলে আস্তে আস্তে নামতে হয় । আকশে খুব মেঘের গর্জন হচ্ছিল । তাই ভাবছিলাম ফলস দেখতে নীচে নামবো কিনা কারণ নীচে নামার পর বৃষ্টি নামলে এক হাতে ছাতা ধরে উপরে উঠতে খুব কষ্ট হবে ।মনে জোড় এনে ধীরে ধীরে নামতে লাগলাম । কিছুটা নামতেই প্রথম ফলসটা দেখতে পেলাম ।

BAMNI FALL

অনেক উপর থেকে নীচে জল পড়ছে । ভাল লাগলো । বেশ কিছুক্ষণ ওখানে থেকে আরও নীচে নামলাম আরেকটা ফলস দেখতে ।ডান হাতে ফলস আর সামনে বিরাট লেক । দারুন সুন্দর দৃশ্য । এবার উঠতে হবে । বেশ কষ্ট হল উপরে উঠে আসতে । অনেক জায়গায় দাঁড়াতে হল দম নেওয়ার জন্য । আর ভাগ্য ভাল বৃষ্টি হয়নি । এরপর দুপুরের খাবারের জন্য ফিরে আসলাম হোটেলে । খাওয়া দাওয়া সেরে একটু বিশ্রাম নিয়ে গেলাম ময়ূর পাহাড় দেখতে ।

MAYUR PAHAR

ওখান থেকে পুরো গ্রামটা খুব ভাল দেখা যায় । তারপর গেলাম কাছেই সীতাকুণ্ড দেখতে । ছোট্ট একটা কুয়া । রামায়নের সীতা নাকি বনবাসে এসে ওখান থেকে জল খেয়েছিল । যেহেতু অনেক ড্যাম দেখছি তাই আর মুরগুমা ড্যাম দেখার ইচ্ছা হোলনা ।অনেকটা দূরও ছিল ।সময় ছিল তাই ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ হেঁটে হেঁটে ঘুরে আসলাম । কাছেই দুর্গাপূজার প্যান্ডেল দেখলাম । তার পাশেই স্টেডিয়াম । তখনও ফুটবল টুর্নামেন্ট চলছিল , তাই মাঠে খুব ভিড় । লাইব্রেরীর উল্টোদিকে একটা মন্দির সেখানেই দুর্গাপূজা হচ্ছিল । এই দুর্গাপূজা কেন্দ্র করে পুরো অযোধ্যা পাহাড় জুড়ে চলছিল উৎসব ।আমরাও উৎসবে মিশে গেলাম । মনে হচ্ছিল লাল, নীল , সবুজের মেলা বসেছে । স্টেজ বানিয়ে অনুষ্ঠান চলছে । শুনলাম সারা রাত স্টেডিয়ামের মাঠে ছৌ নাচের অনুষ্ঠান হবে । ছৌ নাচ বিষয়গতভাবে মহাকাব্যিক। এই নাচে রামায়ণ ও মহাভারতের বিভিন্ন উপাখ্যান অভিনয় করে দেখানো হয়। কখনও কখনও অন্যান্য পৌরাণিক কাহিনিও অভিনীত হয়। ছৌ নাচের মূল রস হল বীর ও রুদ্র। নাচের শেষে দুষ্টের দমন ও ধর্মের জয় দেখানো হয়। গ্রামাঞ্চলে এই নাচের আসর কোনো মঞ্চে হয় না; খোলা মাঠেই আসর বসে, লোকজন চারিদিকে জড়ো হয়ে নাচ দেখে। আমাদেরও দেখার ইচ্ছা । রাত্রি ১১.৩০ অবধি অপেক্ষা করেও যখন শুরু হোল না , তখন বাধ্য হয়েই হোটেল ফিরে গেলাম । কারণ পরদিন যাব মুকুটমনিপুর । কাল সকালে মুকুটমনিপুর যাওয়ার পথে চোড়িদা গ্রাম দেখে নেব । ছৌ শিল্পের পিঠস্থান এই চোড়িদা গ্রাম । বিভিন্ন ধরনের ছৌ নাচের মুখোশ বিক্রি হয় ।

CHORIDA VILLAGE

2 thoughts on “পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়

  1. Sampa Gupta
    Apurbo barnana
    Lipika Roy
    Ajoddha pahar sotti khub sundor.
    Prokkriti ei pahar ke dhele sajiechhe.
    Biman Kumar Chatterjee
    তোমায় নুতন করে পাব বলে….
    Runu Subhash
    Kanpure aei
    Apurba Neogi
    Wonderful travel description with matching superb photographs.
    Soma Dasgupta
    তোমাদের পুরুলিয়া ভ্রমণ কাহিনীটা পরে মনে হচ্ছে পুরুলিয়াটাই আগে ঘুরে আসি , আর ছবিগুলো কি অপূর্ব ।
    Mita Sengupta
    Eto sundor lekhen..love to read
    Padmanabha Chakraborti
    খুব ভাল লাগল। পড়লেই বেরিয়ে পড়তে ইচ্ছে হয়।
    Chanchal Bhattacharya
    বাহ্।
    খুব ভালো।।
    Swapna Sen Gupta
    অপূর্ব লেখা।সব যেনো চোখের সামনে ভাসছে।
    Kanti S
    Khub sundar sob chobi gulo lekha darun
    Kumkum Dutta
    অপূর্ব দৃশ্য ♥️♥️
    Suparna Chowdhury
    খুব সুন্দর
    Aparajita Sengupta
    তোমার লেখা পড়ে আমি মানস ভ্রমণে ঘাটশিলা ঘুরে এলাম ।খুব সুন্দর লাগল ।
    Bijaya Chatterjee
    Sedin dujane pahare
    Aparajita Sengupta
    পুরুলিয়া জেলার অযোধ্যা পাহাড়ের বর্ণনা অপূর্ব লাগল ।
    Ruby Nandy
    Baby kotodin chilis ai ajodhya pahar e
    Aloka Mitra
    ভ্রমণ কাহিনী তা ও আবার নিজের কাছে র লোকের দারুন লাগলো আর মনে হলো বেড়েই আসি
    Aloka Mitra
    Hard copy ba safe kare রাখলে ভালো হবে , reference kaje lagbe amader
    Mita Sen
    Khub sundor lekha
    Sucheta Sen
    Darun lekhoni r darun photography
    Gobinda Chakravarty
    সুন্দর লিখে চলেছেন ঘাটশিলায় শুরু করে অযোধ্যা পাহাড় হয়ে ভ্রমণ কাহিনী যা অন্যদের মধ্যে আগ্রহের সৃষ্টি করবে আবার পথ নির্দেশ ও ভ্রমণ পরিকল্পনার সাহায্যও করবে /
    খুব ভালো ….
    Ganesh Ghosh
    Nice trip
    Soma Mustafi
    Beautiful
    Amit Mitra
    ভালো লাগছে।

    Liked by 1 person

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s