পরিবর্তনের আশায়

পরিবর্তনের আশায়

আমার জানলা দিয়ে উত্তর দিকে তাকালেই দেখা যায় একটা পুকুর যার রাশভারী নাম কালিগঙ্গা । তাই এই পুকুরে দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসছে প্রতিমা বিসর্জন । আমাদের ছোটবেলায় মানে ৪৫ বছর আগে এই পুকুরের ছিল ভরা যৌবন । আর এখন নানা রোগে জরাজীর্ণ । শরীর অনেকটাই শুকিয়ে গেছে । কিন্তু শোষণ বন্ধ হয়নি । দূষণের উপর আরও বাড়ছে দূষণ ।আর নানা জীবাণু পাকাপাকিভাবে আস্তানা গেরেছে । তাই যারা প্রতিমা নিয়ে আসছে তারা বেশিরভাগই জলে না নেমে নিচের সিঁড়ি (এই পুকুরে একটা বাঁধানো ঘাট আছে ) থেকেই বিসর্জন দিচ্ছে । খারাপভাবে বলতে গেলে বলতে হয় প্রতিমা ছুড়ে দিচ্ছে । প্রতিমা জলে ডুবছে না । কেউ কেউ ধাক্কা মেরে একটু দূরে পাঠানোর চেষ্টা করছে মাত্র । কিন্তু জল কম তাই প্রতিমা ভাসতে ভাসতে দূরে যেতে পারছেনানিয়ম মেনে পূজা করার পরে বিসর্জনটা বড়ই নিদারুন । পরদিন সকাল হতেই আসে কিছু যুবক যারা কাঠামো সমেত সব প্রতিমাই পুকুর পারে তুলে রাখে । তারপর লরি এসে সব নিয়ে চলে যায় । অর্থাৎ যারা প্রতিমা বানায় তাদের কাছে বিক্রি করে দেয় recycle হওয়ার জন্য

বিদেশে তো প্রতিমার বিসর্জন হয় না । বাক্স বন্দী হয়ে চলে যায় কারও বাড়িতে , পরের বছর আবার আসবে বলে । আমাদের এখানে যদি প্রতিমা জলে বিসর্জন না দিয়ে বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয় তাহলে কেমন হয় ? যার কাছ থেকে প্রতিমা আনা হয়েছিল তাকেই ফেরত দেওয়া হল । শুধু প্রতিমা কদিন ব্যবহার করার জন্য তাকে তার পারিশ্রমিক দেওয়া হল । প্রতিমার জন্য খরচা তাহলে অনেকটাই কমবে কিন্তু প্রতিমা শিল্পীদের কোনরকম ক্ষতি হবে না । সমাজের কারও তো কোন ক্ষতি হবে না বরং পুকুর , নদীদূষণ এইজন্য কমবে । পরিবেশ দূষণও কমবে কেননা গাছ কাটা কম হবে । আমার পাশের পুকুরের মতো আরও অনেক অপরিষ্কার জলাশয় আছে যেখানে বিসর্জন হয় , সেখান থেকে আর জীবাণু ছড়াতে পারবে না । বিসর্জনের আনন্দও কিছু কমবে না । সর্বোপরি ধর্মের উপরও কোন আঘাত আনা হচ্ছে না । তাই পরিবেশের স্বার্থে এই পরিবর্তন মানা কি খুবই অসম্ভব ?

Please visit my You tube channel : https://www.youtube.com/cha…/UCwI8JNW7FmslSEXnG6_GAgw/videos

2 thoughts on “পরিবর্তনের আশায়

  1. Surajit Das Gupta
    তাহলে তো বিসর্জনের নামে হল্লা বন্ধ হয়ে যাবে। না একদমই মানা যাবে না। পরিবেশ দূষিত হচ্ছে তাতে আমার কি?
    Chayan Sengupta
    আপনার প্রস্তাবটা অনুধাবন যোগ্য কিন্তু কোলকাতার জন্য বাস্তব নয়।কারণ এটা বাস্তবায়িত হলে শতাব্দী পুরোনো কুমারটুলীর ঐতিহ্য নষ্ট তো হবেই বিরাট একটা ইন্ডাস্ট্রী একেবারে বন্ধ হয়ে যাবে।
    Shubhranshu Mohan Banerji
    সদর্থক চিন্তা, তবে শুনবে কে ?
    Apurba Neogi
    Great idea
    Chanchal Bhattacharya
    অত‍্যন্ত যূক্তিপূর্ণ এবং সময়াপোযোগি পরামর্শ।
    Kanti S
    Khub bhalo idea
    Bhabani Pramanik
    প্রাচীন কাল থেকে চলে আসা প্রথা বা রীতি ভাঙা কঠিন তবে অসম্ভব নয়। সময় বলে দেবে…..
    Abanikumar Banerjee
    সত্যি করেই এমন করলে সব কুল রক্ষা হয়!এটা
    ভাল ভেবেছ !
    Champak Mitra
    আমাদের ভাবাবেগ অত্যন্ত সাবেকি,যখন যেমন তখন তেমনের মত।এখানে পরিবর্তন আনতে আলোচনা প্রয়জন।তবে কতটা ফলপ্রসূ হবে সেটাই চিন্তার।
    Ranjit Sen
    Khub sunder prostab..ami antorik bhabe somorthan korchi
    Akhil Sarkar
    Prastab ti khubi valo kintu biraler golay ghanti badhbe ke
    Pranab Banerjee
    খুব ভালো প্রস্তাব। বাস্তবায়িত হলে ভাল হবে মনে হয়।
    Goutam Choudhury
    Idea ta bhalo kintu ekta baro business mara jabe.
    Biswanath Acharjee
    এ তো খুব ভাল প্রস্তাব। প্রস্তাবনা পরিবেশ বান্ধব ও মানবকল্যাণকর ।

    Liked by 1 person

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s