অবসাদ দূর করতে –  হাঁটা ( কতক্ষণ হাঁটবো / কত দূর হাঁটবো/ কখন হাঁটবো/ হাঁটার উপকারিতা কি )

অবসাদ দূর করতে – হাঁটা ( কতক্ষণ হাঁটবো / কত দূর হাঁটবো/ কখন হাঁটবো/ হাঁটার উপকারিতা কি )

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ২০১৭ তে স্বাস্থ্য দিবস ছিল অবসাদ । সত্যিই আজকের যুগে অবসাদ একটি বড় সমস্যা । কারণ মনে হয় অত্যাধিক মানসিক চাপ ও বন্ধুত্বের ( Face book friend নয় ) অভাব । এক এক সময় অবসাদ মানুষকে মৃত্যুর দিকে পর্যন্ত ঠেলে দিচ্ছে । এর থেকে বাঁচার জন্য চাই প্রতিদিন নিয়মিত ব্যায়াম এবং একাকিত্ব দূর করতে প্রকৃত বন্ধুর সঙ্গ বা গান বাজনার অভ্যাস করা । সবচেয়ে সহজ এবং বিনা পয়সার সব বয়সের মানুষের জন্য ব্যায়াম হল হাঁটা । গান শুনতে শুনতে বা ভাল কিছু চিন্তা করতে করতে হাঁটা হোল সবচেয়ে ভাল।হাঁটা , অ্যারোবিক ব্যায়ামের মধ্যে পরে যার সাথে তুলনা করা যায় সাইক্লিং, সাতার, হাইকিং, টেনিস, ফুটবল ইত্যাদি খেলা হাঁটার সব চেয়ে বড় সুবিধা–এটির জন্যে বাড়তি কোনো যন্ত্রপাতি বা কোনো ব্যায়ামের উপকরণ লাগে না

শুধু কি ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেসার, হৃদরোগ হলেই হাঁটব

নিয়মিত হাঁটাকে রোগ প্রতিরোধের হাতিয়ার হিসাবে মনে করে সুস্থ অবস্থা থেকেই হাঁটার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিৎ। অথচ আমরা হাঁটি তখনই, যখন ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেসার, হৃদরোগ ইত্যাদি অসুখ ধরা পড়ে এবং যখন ডাক্তার বলেন যে ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি আপনাকে হাঁটতে হবে, তখন আমরা হাঁটি। পারলে দৌড়ানোর চেষ্টা করি।কিন্তু অসুখ হলেই হাঁটব এটা ঠিক নয়।সব সুস্থ মানুষের সুস্থতাকে ধরে রাখার জন্য হাঁটা আবশ্যক।

নিয়মিত নিদিষ্ট সময় ধরে হাঁটলে কি কি উপকার হয়

  • অবসাদ ও টেনশন কমাতে দারুন কাজ দেয়

  • উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়

  • রক্তে সুগার এবং কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রনে রাখে

  • শরীরে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে শরীরকে অফুরন্ত শক্তি যোগায়

  • শরীরের সমস্ত মাংসপেশীকে সচল রাখে এবং শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমায়
  • তারুণ্য ধরে রাখে এবং ঘুম ভাল হয়
  • হৃদযন্ত্র ও ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বাড়ায়

  • মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়

সপ্তাহে কতদিন ও কতক্ষণ হাঁটবেন

সপ্তাহে ৪ থেকে ৬ দিন হাঁটতে পারলে ভাল । কতটা হাঁটব তারথেকে বড় হল কতক্ষণ হাঁটবো । ডাক্তারের কোন বারন না থাকলে সাধারণত ৪৫ মিনিট থেকে ৬০ মিনিট হাঁটা ভাল ।

কোথায় হাঁটবেন

নিঃসন্দেহে সুন্দর, দূষণ মুক্ত, মনোরম পরিবেশে্‌ , পরিষ্কার ,মান জায়গায় হাঁটতে পারলে সবচেয়ে ভাল লাগবে । নাহলে যে কোন জায়গায় সেটা হতে পারে বাড়ির বাগান, পার্ক , পরিষ্কার ফুটপাতে বা যেকোনো খোলা জায়গায় । মাঝে মাঝে হাঁটার রাস্তা বা জায়গা বদল করলে একঘেয়েমি কাঁটবে।

হাঁটার গতি কেমন হবে

হাঁটার গতি নির্ভর করবে শরীরের ওজন ও সুস্থতার উপর । একটা জিনিষ শুধু মনে রাখতে হবে যেন শরীর ক্লান্ত না লাগে বা নাড়ির গতি অস্বাভাবিক বৃদ্ধি না পায় । অসুবিধা না হলে হাঁটার গতি হতে পারে গড়ে প্রতি মিনিটে ৮০ থেকে ১৩০ স্টেপ বা ৫০ থেকে ৮০ মিটার বা ১৬০ ফুট থেকে ২৬০ ফুট । শরীরকে কষ্ট দিয়ে কক্ষনও হাঁটবো না । প্রথম প্রথম ধীরে ধীরে শুরু করে তারপর ধীরে ধীরে গতি বাড়ানো যেতে পারে ।

হাঁটার আগে / পরে / মধ্যে জল খাওয়া উচিৎ কিনা

একটা জিনিষ সব সময় খেয়াল রাখতে হবে যে শরীর যেন কক্ষনও জলের অভাব বোধ না করে । সেই বুজে হাঁটার আগে , পরে বা মধ্যে জল খাওয়া যেতে পারে । এত বেশি করে নিশ্চয় জল খাবো না যাতে হাঁটলে শরীরের কষ্ট হয় ।

কখন হাঁটবো

যে কোন সময়ই হাঁটা যায় কিন্তু একই সময়ে প্রতিদিন হাঁটলে শরীরে ভাল কাজ দেয় । করা রৌদ্রতে হাঁটা খুবই কষ্টদায়ক তাই বাইরে হাঁটলে রোঁদ উঠার আগে বা পরে হাঁটা যেতে পারে ।দূষণ মুক্ত আবহাওয়ায় বিকালের পর হাঁটা সবচেয়ে ভাল। কারণ সারাদিনের কাজকর্মের পর শরীরের মাংসপেশী নরম থাকে এবং শরীরের তাপমাত্রা অনুকূলে থাকে তারফলে আর ওয়ার্ম আপ করার প্রয়োজন লাগে না। বিশেষ করে শীত কালে । কিন্তু যেখানে বিকালে পরিবেশ দূষণের মাত্রা বেড়ে যায় সেখানে অবশ্যই সকালে হাঁটা ভাল । একটা কথা স্পষ্টভাবে বলা যেতে পারে যে যখনই সময় পাবেন হেঁটে নেওয়া ভাল তবে চেষ্টা করুন প্রতিদিন একই সময়ে হাঁটতে ।

হাঁটার সময় শ্বাসপ্রশ্বাস কেমন হবে

একদম স্বাভাবিক । তবে মাঝে মাঝে পেটটা একটু ভিতরের দিকে টেনে নাক দিয়ে জোরে শ্বাস নিয়ে মুখ দিয়ে ছাড়লে ভাল ।

যারা হাঁটাকে ব্যায়াম হিসাবে গ্রহণ করবে না

  • যে সকল মানুষ অতিরিক্ত শারীরিক পরিশ্রম করে

  • যে সকল মানুষ পরিমিত খাবার পায় না

  • যে সকল মানুষকে ডাক্তার বারন করেছে

walking

আসুন, আমরা নিয়মিত হাঁটা হাঁটির মাধ্যমে সুস্থ এবং দীর্ঘ জীবন লাভ করার চেষ্টা করি।

Please visit my You tube channel : https://www.youtube.com/cha…/UCwI8JNW7FmslSEXnG6_GAgw/videos

3 thoughts on “অবসাদ দূর করতে – হাঁটা ( কতক্ষণ হাঁটবো / কত দূর হাঁটবো/ কখন হাঁটবো/ হাঁটার উপকারিতা কি )

  1. Pradip Kumar Das
    Very good and helpful information
    Kanti S
    Good information
    Surja Ghosh
    Helpful informations .
    Naru Mahato
    Important Post
    Manik Dutta
    খুব প্রয়োজনীয় তথ্য দিলেন স্যার। ধন্যবাদ। শুধু হাঁটার গতি র ব্যাপার টা আর একটু specify করলে ভালো হতো।🙏
    Swapan Dattaray
    good advise . everybody should follow .thank you .
    Subhashis Roychowdhury
    For your good health

    Liked by 1 person

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s